তামিম-সাইফুদ্দিনের ব্যাটিং ঝড়ে সেরা তিনে ফরচুন বরিশাল।

মোঃফয়সাল হোসেন
  • প্রকাশিত হয়েছে: বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৯৫ বার এই মুহূর্তে
  • শেয়ার করুন

ম্যাচ জয়ের পর ফরচুন বরিশালের প্লেয়ারদের জয়ের উল্লাস।ছবিঃ কালের কন্ঠ

২০২৪ বিপিএল এর শুরুটা ভালো যাচ্ছিল না ফরচুন বরিশালের।টানা ৩ ম্যাচ হারের পর অনেকটা হতাশায় ভুগছিল বরিশাল টিম ম্যানেজমেন্ট ও খেলেয়াররা।ধারা হয় এবারের আসরে সেরা টিম গঠন করেছে

ম্যাচসেরা পুরুষ্কার হাতে ক্রিকেটার তামিম ইকবাল।ছবিঃফেসবুক

ফরচুন বরিশাল।সেরা টিম হলেও মাঠের পার্ফরমেন্সে সেরাটা দিতে পারছেন না তারা।যাই হউক অবশেষে তারা ঘুরে দাড়াতে পেরেছে।আজ বুধবার ১৪ই ফেব্রুয়ারি দুর্দান্ত ঢাকাকে হারিয়ে পয়েন টেবিলের সেরা তিনে জায়গা করে নিয়েছেন।দুর্দান্ত ঢাকাকে ২৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ফরচুন বরিশাল।

 

প্রথমে বরিশালের হয়ে প্রথমে ব্যাট করতে এসেছিলেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও আহমেদ শেহজাত। ব্যাটিং করতে এসে দলকে ভালোই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল ফরচুন বরিশালের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও আহমেদ শেহজাত।ওপেনিং জুটিতে ৮.২ বলে ৭৬ রান তুলেন ফরচুন বরিশাল।দলীয় ৭৬ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৪ রান করে ক্যাচ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান আহমেদ শেহজাত। তারপরে নতুন ব্যাটসম্যান হিসাবে উইকেটে আসেন সৌম্য সরকার,জুটি বাধেন তামিম ইকবালের সাথে। তাদের জুটির সমাপ্তি ঘটে তামিম ইকবালের আউটের মাধ্যমে।দলীয় ১২৪ রানের মাথায় আউট হন তামিম ইকবাল।ব্যাক্তিগত ৪৫ বলে ৭১ রান করে আউট হন তামিম ইকবাল।

 

তৃতীয় উইকেটের জুটিতে মাঠে নামেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। জুটি বাধেন সৌম্য সরকারের সাথে। আজ নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ১০ বলে মাত্র ১৩ রান করে আউট হন তিনি।তখন দলীয় সংগ্রহ ছিল ১৪৯ রান। দলীয় ১৫৭ রানের মাথায় আউট হন সৌম্য সরকার।পঞ্চম উইকেটের জুটিতে উইকেটে এসে সুবিধা করতে পারননি মুশফিকুর রহিম। নামের পাশে মাত্র ১ রান যোগ করেই আউট হয়ে যান মিস্টার ডিপেন্ডেবল।তারপর উইকেটে আসা মেহেদী হাসান মিরাজও ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ।

 

শেষ পর্যন্ত মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের ৬ বলে ২৩ রানের ঝড়ো ইনিংসের মাধ্যমে ২০ ওভার ব্যাটিং করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৬ রান করে ফরচুন বরিশালের ব্যাটাররা।

 

ঢাকার হয়ে ৪ ওভার বল করে ৩০ রানে ৩ উইকেট নেন আলাউদ্দিন বাবু।এছাড়া তাসকিন আহমেদ ২টি ও শরিফুল ইসলাম ১ টি উইকেট নেন।

 

১৮৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামেন দুর্দান্ত ঢাকার দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম ও এডাম রশিংটন।ইনিংসের শুরুতেই ঢাকায় নেমে আসে চরম ব্যাটিং ব্যর্থতা।ইনিংসের মাত্র ১.৫ বলে দলীয় ১৭ রানের মাথায় ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে দুর্দান্ত ঢাকা। তারপরে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে দুর্দান্ত ঢাকা। ঢাকার হয়ে একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসাবে ৪৯ বলে ৮৯ রান করেন এলেক্স রোস।

 

আজকের ম্যাচে বল হাতে দারুন একটি শুরু এনে দিয়েছেন ফরচুন বরিশালের বলাররা।আজকের ম্যাচে ফরচুন বরিশালের বলাররা ছিলেন অগ্নিশীখার মতো।প্রথম ২ ওভারেই ৩ উইকেট তুলে নিয়েছিল,যা দুর্দান্ত ঢাকার ব্যাটিং লাইনকে দুর্বল করে দেয়।ফরচুন বরিশালের হয়ে সেরা বোলিং করেন খালেদ আহমেদ। ৪ ওভার বল করে মাত্র ২৬ রান খরচ করে ৩ উইকেট তুলে নেন।মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন আজ ব্যাট হাতে যেমন অগ্নিঝড়া ইনিংস উপহার দিয়েছে, বল হাতেও কম যাননি। সাইফুদ্দিন ৪ ওভার বল করে মাত্র ৩১ রান খরচ করে ৩ উইকেট তুলে নেন। এছাড়াও সাউদ আফ্রিকান কিশোব মহারাজ ৪ ওভারে ১৯ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন।ওয়েস্টিনডিয়ান তারকা ওবেদ ম্যাককয় ৪ ওভারে ১৭ রান খরচ করে ১ উইকেট নেন।তাই নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৫৯ রানে থেমে যায় দুর্দান্ত ঢাকার ইনিংস।

 

ফরচুন বরিশাল বনাম দুর্দান্ত ঢাকার ম্যাচের ফলাফলঃ
ফরচুন বরিশালঃ ২০ ওভারে ১৮৬/৬
দুর্দান্ত ঢাকাঃ ২০ ওভারে ১৫৯/৮

,

মন্তব্য করুন

আরও পড়ুন এই ক্যাটেগরিতে